শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৬:১১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
স্বরূপকাঠী রিক্সা ও বউগাড়ীর শ্রমিক লীগের নির্বাচন অনুষ্ঠিত দুর্গাপূজা উপলক্ষে ৬ দিন বন্ধ বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বাংলাদেশ সম্পাদক ফোরামের শ্রদ্ধা পঞ্চগড়ে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা জাতীয়করণের ১দফা দাবিতে মানববন্ধন হাতীবান্ধায় বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রান ও বেকার যুবতীর মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ ময়মনসিংহে শেখ রাসেলের জন্ম বার্ষিকী পালন ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী পঞ্চগড়ে বিট পুলিশিং সমাবেশ কালীগঞ্জে ওসি বললেন নারীদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পুরুষদের নিতে হবে স্বরূপকাঠীতে রোগীর ওষুধ কেনার টাকা চুরি হওয়ার অভিযোগ শরণখোলায় নৌকা মার্কার পথসভা জনসমুদ্রে পরিনত স্বরূপকাঠীতে সুতারমিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ভোক্তা-অধিকারের অভিযানে স্বরূপকাঠীতে ইন্দেরহাট-মিয়ারহাট বন্দরে পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শরণখোলায় একমঞ্চে দলীয় প্রার্থীরা স্বরূপকাঠীতে এনজিও কর্মকর্তারা ২০ লক্ষ টাকা নিয়ে উধাও! লালমনিরহাটে তুচ্ছ ঘটনায় ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

Salat Times

    Dhaka, Bangladesh
    Friday, 23rd October, 2020
    SalatTime
    Fajr4:44 AM
    Sunrise5:59 AM
    Zuhr11:43 AM
    Asr3:00 PM
    Magrib5:26 PM
    Isha6:42 PM

আল্লাহর হুকুম ব্যতীত কারো মৃত্যু হতে পারে না

MY SOFT IT Wordpress Plugin Development

Covid 19 latest update

# Cases Deaths Recovered
World 41,959,864 1,142,073 31,169,308
Bangladesh 394,827 5,747 310,532
Data Source: worldometers.info

কুরআন কারীম যেভাবে বিনয়, নম্রতা, ক্ষমা, অনুকম্পা ও উপেক্ষণের শিক্ষা দান করে, তেমনিভাবে যথাস্থানে বীরত্ব, বাহাদুরি ও সাহসিকতা প্রদর্শনেরও দীক্ষা দেয়। উদাহরণত সত্য ও মিথ্যা এবং ন্যায় ও অন্যায়ের সংগ্রামের ক্ষেত্রে কুরআন মাজিদ তার অনুসারী ও মান্যকারীদের লৌহপুরুষের মতো পরিপূর্ণ বীরত্ব ও দৃঢ়তার সাথে যুদ্ধ করার নির্দেশ দান করে।

এক জায়গায় বলা হয়েছে, ‘আল্লাহ তায়ালা তার সে সমস্ত বান্দাকে ভালোবাসেন, যার তার পথে কাতারবন্দী হয়ে এমনভাবে যুদ্ধ করে, যেন তার একটি সীসাঢালা প্রাচীর।’ (সূরা সফ : আয়াত ৪)। অন্য আরেক জায়গায় রাসূলুল্লাহ সা. এর সাহাবায়ে কেরামের সে ঈমানি শক্তি ও বীরত্বের আলোচনা বিশেষ প্রীতি ও প্রশংসার ভঙ্গিতে করা হয়েছে।

যখন তাদেরকে প্রভাবিত ও ভীতসন্ত্রস্ত করে তোলার জন্য এ সংবাদ পৌঁছানো হলো যে, তোমাদের শত্রুপক্ষ তোমাদেরকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার উদ্দেশে বিপুল আয়োজন করেছে এবং বিরাট সমরোপকরণ সংগ্রহ করেছে, তখন তারা আদৌ প্রভাবিত ও সন্ত্রস্ত হয়নি। বরং তারা তাতে করে তাদের ঈমানি শক্তি অধিকতর শাণিত হয়ে উঠে।

তারা বলে, আমাদের জন্য আমাদের আল্লাহই যথেষ্ট। এসব কিছু আমরা দেখে নেবো। সূরা আল ইমরানে ইরশাদ হয়েছে : ‘আমার সে সমস্ত ঈমানদার বান্দা যাদেরকে লোকেরা বলল, (তোমাদের নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার জন্য) সমস্ত লোক সমবেত হয়েছে এবং তারা বিপুল উপকরণ সংগ্রহ করে নিয়েছে। তাদের প্রতি তোমাদের ভীত হওয়া প্রয়োজন। তখন এ বিষয়টি ঈমানি অবস্থা অধিকতর দৃঢ় করে দেয় এবং তারা বলে, আমাদের জন্য আল্লাহই যথেষ্ট ও উত্তম কর্ম সম্পাদক।’ (সূরা আল ইমরান : আয়াত ১৭৩)।
এ প্রসঙ্গে আরো একটি বিষয় উপলক্ষণীয় যে, মৃত্যুর ভয় কিংবা কোনো কষ্ট বা ক্ষতির আশঙ্কা এমন বিষয়, যা সাহসিকতা ও সৌর্য বীরত্বের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় এবং মানুষকে ভীরু বানিয়ে দেয়। কুরআন মাজিদ ভীরুতার এ মূলটিকেও উপড়ে ফেলেছে। বিভিন্ন স্থানে বলে দেয়া হয়েছে যে, মৃত্যুর জন্য সময় নির্ধারিত রয়েছে। সে সময় উপস্থিত হয়ে গেলে কেউ বাঁচাতে পারে না। আর যদি সে সময় তখনো না আসে, তা হলে কেউ মারতেও পারে না।

এমনিভাবে নানা জায়গায় বলা হয়েছে, কোনো কষ্ট বা ক্ষতিসাধন করা না করা একান্তভাবেই আল্লাহর ইচ্ছা-অনিচ্ছার ওপর নির্ভরশীল। যতক্ষণ পর্যন্ত তার ইচ্ছা ও হুকুম না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত কেউ আমাদেরকে কষ্ট দিতে ও ক্ষতি সাধন করতে পারে না। আর যখন তার পক্ষ থেকে হুকুম হবে, তখন কেউ আমাদেরকে কষ্ট ও ক্ষতি থেকে রক্ষাও করতে পারে না।
এ প্রসঙ্গেও এখানে দু’চারটি আয়াত পাঠ করে নিন। সূরা আল ইমরানে ইরশাদ হয়েছে, ‘আর কারো মৃত্যু আসতে পারে না আল্লাহর হুকুম ব্যতীত। (মৃত্যুর জন্য) নির্ধারিত সময় লেখা হয়ে গেছে।’ (সূরা আল ইমরান : আয়াত ১৪৫)। অন্য আরেক জায়গায় বলা হয়েছে, ‘যখন তাদের মৃত্যুকাল উপস্থিত হয়ে যাবে, তখন না এক মুহূর্ত পেছনে থাকতে পারবে, না এগিয়ে যেতে পারবে (ঠিক নির্ধারিত সময়ে তুলে নেয়া হবে)। (সূরা ইউনুস : আয়াত ৪৯)।

এমনিভাবে অপর এক আয়াতে বলা হয়েছে, ‘কোনো বিপদই আসতে পারে না আল্লাহর হুকুম ছাড়া।’ (সূরা তাগাবুন : আয়াত ১১)। সূরা তওবায় ইরশাদ হয়েছে, ‘হে রাসূল বলে দিন, কখনো আমাদের কোনো বিপদ আসতে পারে না, তা ছাড়া যা আল্লাহ তায়ালা আমাদের জন্য নির্ধারিত করে দিয়েছেন। তিনি আমাদের মালিক। আর যারা ঈমানদার তাদের সব কাজই আল্লাহর ওপর ন্যস্ত করা উচিত। (সূরা তওবাহ : আয়াত ৫১)।
লক্ষ করার বিষয় যে, যাদের অন্তরে এ শিক্ষা বদ্ধমূল হয়ে যাবে, তাদের ভীরুতার অবকাশ কোথায় থাকতে পারে এবং শৌর্য ও সাহসিকতার পথেই বা তাদের জন্য কি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হতে পারে?

আপনার মতামত কমেন্টস করুন

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

© All rights reserved ©2018-2020 KalerProbaho24

Design & Developed BY N Host BD